February 24, 2024

অফিস সহায়ক এর কাজ কি: ১৫ টি কাজ, বেতন-ভাতা, পদোন্নতি ও অন্যান্য সুবিধাদি।

অফিস সহায়ক এর কাজ কি

অফিস সহায়ক এর কাজ কি ?

১। অফিসের আসবাবপত্র সাজানো ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা।

২। অফিসের রেকর্ডসমূহ সুন্দরভাবে সাজিয়ে রাখা।

৩। অফিসের ফাইল ও কাগজপত্র কারো কাছে পৌছানো কিংবা অন্য অফিসে পৌছে দেয়া।

৪। নির্দেশক্রমে অফিসের আসবাবপত্র (হালকা) অফিসের মধ্যেই স্থানান্তর করা।

৫। গোপন বা গুরুত্বপূর্ণ ফাইলসমূহ স্টিলের বক্সে ভরে এক অফিস হইতে অন্য অফিসে নিয়ে যাওয়া।

৬। কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য পানির ব্যবস্থা করা।

৭। অফিসের সমস্ত মনিহারী ও অন্যান্য দ্রব্যাদি দেখে রাখা ও দায়বদ্ধ থাকা।

৮। নির্দিষ্ট ড্রেস পড়ে অফিসে আসা।

৯। নিজের শাখার কর্মকর্তাদের কথামত কাজ করা।

১০। সাধারণ জনগণের সাথে নম্র-ভদ্র আচরণ করা।

১১। কর্মকর্তাদের চেক ব্যাংকে জমা দেয়া এবং টাকা তোলা।

১২। অফিস সময়ের ১৫ মিনিট পূর্বে অফিসে আসা।

১৩। অফিসে এসে সহকারী সচিব/প্রধান সহকারীর নিকট আগমনের রিপোর্ট করা।

১৪। অনুমতি ছাড়া অফিস ত্যাগ না করা।

১৫। কর্তৃপক্ষের নির্দেশিত যে কোনো দায়িত্ব পালন করা।

অফিস সহায়ক এর কাজ কি: ১৫ টি অবশ্য পালনীয় কাজ, বেতন-ভাতা, পদোন্নতি ও অন্যান্য।

অফিস সহায়ক এর গ্রেড কত?

২০ তম গ্রেড এ অফিস সহায়করা নিয়োগ পেয়ে থাকেন। আগের চাকরি শ্রেণি হিসেবে একে চতুর্থ শ্রেণির চাকরি হিসেবে গণ্য করা হয়।

অফিস সহায়ক এর বেতন কত?

অফিস সহায়ক এর কাজ কি

অফিস সহায়করা যেহেতু ২০ তম গ্রেডে জয়েন করে সেহেতু তাদের মূল বেতন দেয়া হয় ৮,২৫০/- টাকা। প্রতি বছর বেতন বৃদ্ধি পায় ৫%। প্রতি বছর জুলাই মাসে বেতন বৃুদ্ধি পায়। অঞ্চলভেদে বেতন ভিন্ন হয়ে থাকে।

অফিস সহায়ক এর কাজ কি: ১৫ টি কাজ, বেতন-ভাতা, পদোন্নতি ও অন্যান্য সুবিধাদি।

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এ বেতন:

মূল বেতন: ৮,২৫০/- টাকা

বাড়ি ভাড়া: মূলবেতনের ৬৫%= ৮২৫০×৬৫%=৫৩৬২/- টাকা

চিকিৎসা ভাতা: ১৫০০/- টাকা

টিফিন ভাতা: ২০০/- টাকা

যাতায়াত ভাতা: ৩০০/- টাকা

শিক্ষা সহায়ক ভাতা: ৫০০/- টাকা ( প্রতি সন্তান) সর্বোচ্চ ২ জন (১০০০ টাকা)

তাহলে প্রতিমাসে বেতন:

৮২৫০+৫৩৬২+১৫০০+২০০+৩০০+১০০০=১৬,৫১২/- টাকা

অন্যান্য সিটি কর্পোরেশন ও সাভার পৌর এলাকাতে বেতন:

মূল বেতন: ৮,২৫০/- টাকা

বাড়ি ভাড়া: মূলবেতনের ৫৫%= ৮২৫০×৫৫%=৪৫৩৭/- টাকা

চিকিৎসা ভাতা: ১৫০০/- টাকা

টিফিন ভাতা: ২০০/- টাকা

যাতায়াত ভাতা: ৩০০/- টাকা

শিক্ষা সহায়ক ভাতা: ৫০০/- টাকা ( প্রতি সন্তান) সর্বোচ্চ ২ জন (১০০০ টাকা)

তাহলে প্রতিমাসে বেতন:

৮২৫০+৪৫৩৭+১৫০০+২০০+৩০০+১০০০=১৫,৭৮৭/- টাকা

জেলা শহরে বেতন:

মূল বেতন: ৮,২৫০/- টাকা

বাড়ি ভাড়া: মূলবেতনের ৫০%= ৮২৫০×৫০%=৪১২৫/- টাকা

চিকিৎসা ভাতা: ১৫০০/- টাকা

টিফিন ভাতা: ২০০/- টাকা

যাতায়াত ভাতা: ৩০০/- টাকা

শিক্ষা সহায়ক ভাতা: ৫০০/- টাকা ( প্রতি সন্তান) সর্বোচ্চ ২ জন (১০০০ টাকা)

তাহলে প্রতি মাসে বেতন:

৮২৫০+৪১২৫+১৫০০+২০০+৩০০+১০০০=১৫,৩৭৫/- টাকা

আরো কিছু ভাতা:

উৎসব ভাতা: মূল বেতন এর সমান ( বছরে ২ টা)

বাংলা নববর্ষ: মূল বেতনের ২০%

শ্রান্তি বিনোদন ভাতা: মূল বেতন এর সমান (৩ বছরে ১ বার)

অফিস সহায়ক এর কাজ কি: ১৫ টি অবশ্য পালনীয় কাজ, বেতন-ভাতা, পদোন্নতি ও অন্যান্য।

অবসরকালীন ভাতা ও অন্যান্য:

অবসরে যাওয়ার পর ৩ টি ভাতা পাওয়া যায়:

১. মাসিক পেনশন।

২. ল্যামগ্রান্ট।

৩. এককালীন আনুতোষিক

পেনশন:

অবসরে যাওয়ার পর আপনি প্রতি মাসে যে টাকা পাবেন সেটাই পেনশন।

পেনশন নির্ধারণের পদ্ধতিঃ

সূত্র: সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ = মোট টাকা।

পেনশনের হারঃ

চাকরিকাল ৫ বছর হলে ২১%, পেনশন প্রাপ্ত হবেন।

চাকরিকাল ১০ বছর হলে ৩৬% পেনশন প্রাপ্ত হবেন।

চাকরিকাল ১৫ বছর হলে ৫৪% পেনশন প্রাপ্ত হবেন।

চাকরিকাল ২০ বছর হলে ৭২% পেনশন প্রাপ্ত হবেন।

চাকরিকাল ২৫ বছর হলে ৯০% পেনশন প্রাপ্ত হবেন।

উদাহরণ-

আপনি ‍যদি ২৫ বছরের বেশি সময় চাকরি করেন এবং বিনা বেতনে কোন ছুটি ভোগ না করে থাকেন এবং আপনার সর্বশেষ মূল বেতন ৪০,০০০ টাকা হয় তাহলে পেনশন পাবেন:

(৪০০০০×৯০%)÷২=১৮,০০০/- টাকা

ল্যামগ্রান্ট:

ল্যামগ্রান্ট হিসাব নির্ধারণের পদ্ধতিঃ

সূত্র: চাকরিতে সর্বশেষ মূলবেতন x চাকরিতে অর্জিত ছুটি (সর্বোচ্চ ১৮ মাস)= মোট টাকা

উদাহরণ- ধরি, আপনার সর্বশেষ মূল বেতন ৪০,০০০ টাকা।

তাহলে ল্যাগ্রান্ট পাবেন: ৪০,০০০×১৮=৭,২০,০০০/- টাকা

এককালীন আনুতোষিক:

আনুতোষিক নির্ধারণের পদ্ধতিঃ

সূত্র: সর্বশেষ মূলবেতন x সর্বমোট চাকরির জন্য পেনশনের নির্ধারিত হার (%) ÷ ২ x আনুতোষিকের নির্ধারিত হার = মোট টাকা।

উদাহরণ- ধরি, আপনার সর্বশেষ মূল বেতন ৪০,০০০ টাকা। তাহলে

(৪০০০০×৯০%)÷২=১৮,০০০/- টাকা

বর্তমানে আনুতোষিকের নির্ধারিত হার ২৩০ টাকা।

তাহলে মোট আনুতোষিক: ১৮০০০×২৩০=৪১,৪০,০০০/- টাকা

অফিস সহায়ক এর কাজ কি: ১৫ টি অবশ্য পালনীয় কাজ, বেতন-ভাতা, পদোন্নতি ও অন্যান্য।

অফিস সহায়কের পদোন্নতি:

অফিস সহায়ক এর কাজ কি

বর্তমানে মন্ত্রাণালয়ে অফিস সহায়ক থেকে অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদে নিয়োগের বিধান রয়েছে। সেক্ষেত্রে ৬ বছরের সন্তোষজনক চাকরির রেকর্ড থাকতে হবে। সাথে লাগবে :

১. কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (SSC) বা সমমানের ডিগ্রি।

২. কম্পিউটার চালনায় দক্ষতা।

৩. বিভাগীয় পরিক্ষায় পাস।

রেফারেন্স: দেখুন

অফিস সহায়ক পদে আবেদনের যোগ্যতা:

১. কোনো স্বীকৃত বোর্ড থেকে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (SSC) বা সমমানের ডিগ্রি।

অফিস সহায়ক এর কাজ কি: ১৫ টি অবশ্য পালনীয় কাজ, বেতন-ভাতা, পদোন্নতি ও অন্যান্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *