February 25, 2024

সেক্সে কলার উপকারিতা: কলাতে আছে প্রচুর ভিটামিন বি যা শক্তি উৎপাদন বাড়াতে এবং স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে। কলাতে ট্রিপটোফ্যান নামে একটি অ্যামিনো অ্যাসিড আছে যা সেরোটোনিন উৎপাদন করে। সেরোটোনিনকে বলা হয়  ‘well-Feeling’ হরমোন। সেক্সে কলার উপকারিতা অনেক। নিম্নে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো:

সেক্সে কলার উপকারিতা

১০০ গ্রাম কলাতে যেসব পুষ্টি গুণাগুণ থাকে

ক্যালোরি৮৯
পানি ৭৫%
প্রোটিন১.১ গ্রাম
কার্বোহাইড্রেট২২.৮ গ্রাম
চিনি১২.২ গ্রাম
ফাইবার২.৬ গ্রাম
ফ্যাট০.৩ গ্রাম
পটাশিয়াম৩৫৮ মিলিগ্রাম
আয়রন০.৩ মিলিগ্রাম
ক্যালসিয়াম৫ মিলিগ্রাম
সোডিয়াম১ মিলিগ্রাম
কোলেস্টেরল

সেক্সে কলার উপকারিতা পড়তে থাকুন।

সেক্সে কলার উপকারিতা: ১২ টি বিশেষ গুণ

সেক্সে কলার উপকারিতা
সেক্সে কলার উপকারিতা

টেস্টোস্টেরন হরমোন বৃদ্ধি করে: কলায় থাকে পটাশিয়াম যা টেস্টোস্টেরন হরমোনের উৎপাদনের জন্য প্রয়োজন। পটাশিয়াম এর কারণে টেস্টোস্টেরন হরমোনের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।

শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করে: কলাতে আছে প্রচুর ভিটামিন এ, বি১ ও সি যা শুক্রাণু উৎপাদনে সহায়তা করে। এসব ভিটামিনের কারণে যারা নিয়মিত কলা খায় তাদের শুক্রাণু বেড়ে যায়।

স্বাস্থ্যকর শুক্রাণু তৈরি করে: কলাতে ব্রোমেলিন নামক একটি এনজাইম আছে যা শুক্রাণুর স্বাস্থ্য বাড়ায়। আর স্বাস্থ্যকর শুক্রাণু সন্তান গর্ভে আসার জন্য খুবই প্রয়োজন।

লিবিডো বৃদ্ধি করে: কলাতে যেহেতু পটাশিয়াম থাকে, এই পটাশিয়াম আবার টেস্টোস্টেরনের উৎপাদন বাড়ায়। টেস্টোস্টেরনের কারণে পুরুষের লিবিডো বেড়ে যায়। যার কারণে যৌন চাহিদাও বেড়ে যায়।

প্রজনন অঙ্গের কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে: কলাতে আছে ম্যাঙ্গানিজ এবং ম্যাগনেসিয়াম যা প্রোস্টেট স্বাস্থ্যের উন্নতি করে এবং নারী-পুরুষ উভয়ের প্রজনন অঙ্গের কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে।

শারীরিক শক্তি বৃদ্ধি করে: কলাতে যেহেতু অনেক কার্বোহাইড্রেট থাকে তাই কলা শরীরে ভালো শক্তি যোগায়। এজন্য অনেকে জিমে যাওয়ার আগে, খেলোয়াররা খেলার সময় কলা খায়।

লিঙ্গকে শক্ত করে: কলা যৌনাঙ্গে রক্ত ​​সঞ্চালন বৃদ্ধি করে যার কারণে পুরুষের লিঙ্গ শক্ত হয় এবং যৌন মিলনে সুবিধা হয়।

পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা বাড়ায়: সাধারণত পুরুষদের শরীরে ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজ এর ঘাটতি থাকে। কলাতে এই দুটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান আছে। এই দুটি উপাদান পুরুষের প্রজনন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

দ্রুত বীর্যপাত রোধ করে: কলা থাকা পটাশিয়াম রক্ত ​​প্রবাহ ভালো রাখে। এছাড়া এতে আছে ব্রোমেলিন নামক এনজাইম যা লিবিডো বাড়াতে সাহায্য করে এবং দ্রুত বীর্যপাত রোধ করে।

মেয়েদের মাসিকের ব্যথা কমায়: কলা মেয়েদের মাসিকের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। যেসব মেয়েদের  মাসিকের ব্যথা বেশি তারা নিয়মিত কলা খেতে পারেন।

যৌন চাহিদা বৃদ্ধি করে: কলাতে ব্রোমেলিন নামক একটি এনজাইম আছে যা রক্ত ​​প্রবাহকে বৃদ্ধি করে এবং যৌন চাহিদাকে তীব্র করে।

লিঙ্গ উত্থানজনিত সমস্যা দূর করে: কলাতে আছে পটাশিয়াম, ব্রোমেলিন, ভিটামিনস্ ও অন্যান্য উপাদান ‍যা পুরুষের শরীরে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে। ফলে ইরেকটাইল ডিসফাংশন বা লিঙ্গ উত্থানজনিত সমস্যা অনেকটাই ভালো হয়ে যায়। তাই বলা যায়, সেক্সে কলার উপকারিতা অনেক।

কলার আরো ১৫ টি বিশেষ উপকারিতা:

সেক্সে কলার উপকারিতা
সেক্সে কলার উপকারিতা

সেক্সে কলার উপকারিতা ছাড়াও সাধারণ স্বাস্থ্যতে কলার ভূমিকা অনেক।যেমন:

ওজন কমাতে সাহায্য করে: কলাতে ক্যালোরি কম থাকে এবং কোলেস্টেরল থাকে না।  এটি অতিরিক্ত খাওয়া থেকে বিরত রাখে। তাই যারা ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন তাদের জন্য কলা একটি ভালো খাদ্য হতে পারে।

হার্টের স্বাস্থ্য ভালো রাখে: কলাতে আছে পটাশিয়াম যা হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো। এটি সোডিয়ামের ক্ষতিকর প্রভাব দূর করে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ফলে হার্টের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: কলাতে আছে ভিটামিন সি যা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে। যাদের সর্দি কাশি লেগেই থাকে তারা নিয়মিত কলা খেতে পারেন।

ব্রেইনের জন্য উপকারি: কলাতে আছে ভিটামিন বি৬ থাকে যা গ্লুকোজকে শক্তিতে রূপান্তর করতে সাহায্য করে। এর ফলে মস্তিষ্কের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি পায়। এছাড়া এতে আছে আয়রন যা শিশুদের  মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয়।

মনকে ভালো রাখে: কলাতে আছে ট্রিপটোফ্যান যা সেরোটোনিনের নিঃসরণ বাড়াতে সাহায্য করে। এই  সেরোটোনিনকে বলা হয় ”সুখী হরমোন”! এই হরমোনটি মনকে সতেজ রাখে।

হজমের জন্য সহায়ক: যারা এসিডিটির সমস্যায় ভোগে থাকেন তাদের জন্য কাঁচা কলা খুবই উপকারি। কাঁচা কলা ভর্তা ও সাদা ভাত এসিডিটি প্রশমনে সাহায্য করে। 

কলা স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায়: কলাতে আছে পটাশিয়াম যা সোডিয়ামের ক্ষতিকর প্রভাব দূর করে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।ফলে স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে।

ত্বককে সুস্থ রাখে: কলায় আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যা ত্বককে কোমল রাখতে সাহায্য করে এবং দাগ ও বলি দূর করে। তাছাড়া এটি দ্রুত ক্ষত নিরাময় করে এবং ব্রনের সমস্যা দূর করে।

শারীরিক শক্তি বাড়ায়: কেউ ক্লান্ত বা অলস বোধ করলে এনার্জি ড্রিংকের পরিবর্তে একটি কলা খেতে পারে। কলায় উপস্থিত শর্করা instant শক্তি বৃদ্ধি করে।

পেশীর টান দূর করে: কলায় থাকা পটাসিয়াম ঘামের মাধ্যমে যে খনিজ লবণগুলো হারিয়ে সেগুলোর অভাব পূরণ করে এবং পেশীর টান দূর করে।

কিডনি ভালো রাখে: কলায় থাকা পটাসিয়াম কিডনিতে ক্যালসিয়াম জমতে বাধা দেয় এবং কিডনিতে পাথর তৈরির ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। পটাসিয়াম শরীরের তরল পদার্থের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করে ফলে কিডনির কার্যকারিতা ঠিক থাকে।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে: এটি ফাইবার সমৃদ্ধ, ফলে মলের পরিমাণ বাড়ায় এবং মলকে নরম রাখে। যার কারণে মল ত্যাগ করা সহজ হয়।

ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে: কলাতে আছে ভিটামিন সি যা ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে এবং প্রদাহ, দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতা ইত্যাদি প্রতিরোধে সাহায্য করে।

রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখে: কলাতে আছে দ্রবণীয় ফাইবার যা হজমের সময় তরলে দ্রবীভূত হয়ে জেল তৈরি করে। আবার পাকা কলায় থাকে এক ধরনের স্টার্চ থাকে, যা সহজে হজম হয় না।ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রিত থাকে। এছাড়া কলা খেলে ক্ষুধা কম লাগে।

ইলেক্ট্রোলাইট (খনিজ লবণ) এর অভাব পূরণ করে: ব্যায়ামের সময় ঘামের মাধ্যমে ইলেক্ট্রোলাইটস্ শরীর থেকে বের হয়ে যায়। ঘামের পরে শরীরে পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম এর অভাব দূর করতে কলা একটি আদর্শ খাদ্য।ব্যায়ামের আগে, সময় এবং পরে কলা খেলে দেহে পটাসিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়ামের চাহিদা পূরণ হয়ে যায়।

কলার দুটি রেসিপি:

  • ১টি কলাকে ৭-৮ টুকরো করে এতে ২ চামচ মধু নেয় এবং এতে ৩০০ মিলি গরম দুধের মিশাই। এর সাথে ১০০ মিলিগ্রাম জাফরান (কেসার) মিশিয়ে দিনে দুবার খাওয়া যেতে পারে। একবার সকালে এবং একবার ঘুমানোর আগে।
  • ১টি কলা নেয় এবং এতে ৩০০ মিলি গরম দুধ দিয়ে একটি কলার শেক তৈরি করি। এরপর এতে ১০০ মিলিগ্রাম জাফরান যোগ করি। এই রেসিপিটি দিনে দুবার, একবার সকালে এবং একবার শোবার আগে খাওয়া যেতে পারে।
সেক্সে কলার উপকারিতা
সেক্সে কলার উপকারিতা

কলা ও দুধ এক সাথে খাওয়ার উপকারিতা:

কলাতে আছে ভিটামিন, খনিজ পদার্থ ও ফাইবার যা খাদ্য হজমে সহায়তা করে। পাশাপাশি এসব উপাদান শরীরের ওজন কমাতেও সাহায্য করে। অন্যদিকে দুধে আছে ক্যালসিয়াম যা হাড়কে মজবুত করে এবং প্রোটিন সংশ্লেষণে সাহায্য করে।

তাই কলা এবং দুধ একত্রে খুব ভালো কাজ করে। তবে এই সময় হালকা ব্যায়াম করা উচিত।

সেক্সে কলার উপকারিতা পড়তে থাকুন।

REFERENCE 01 : CLICK HERE

REFERENCE 02: CLICK HERE

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *